শনিবার, বিকাল ৩:০৬, ১লা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৩রা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি
ভোলা ট্রিবিউনের পক্ষ হতে সকলকে জানাই প্রাণঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।
জাতীয় | আন্তর্জাতিক | ভোলা সদর | দৌলতখান | বোরহানউদ্দিন | লালমোহন | তজুমুদ্দিন | চরফ্যাশন | মনপুরা | ভোলার ইতিহাস ঐতিহ্য | বিশেষ সাক্ষাৎকার | প্রবাসীদের কথা | পাঠক কলাম |

ঢাকা থেকে ইঞ্জিনিয়ার আসার অপেক্ষায় – ভোলা হাসপাতালে বরাদ্দ হওয়ার এক সপ্তাহেও চালু হয়নি আইসিইউ

আপডেট : এপ্রিল, ২৫, ২০২১, ২:৩৭ অপরাহ্ণ

:

শিমুল চৌধুরীঃ
ভোলা সদর হাসপাতালে বরাদ্দ দেওয়ার এক সপ্তাহেও চালু করা সম্ভব হয়নি ৩টি আইসিইউ বেড ও ৫টি হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা। ঢাকা থেকে ইঞ্জিনিয়ার না আসায় আইসিইউ বেড ও হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা চালু করা যাচ্ছে না বলে জানালেন ভোলার সিভিল সার্জন ডা. সৈয়দ রেজাউল ইসলাম। তিনি আজ সকালে এ প্রতিনিধিকে বলেন, ঢাকা থেকে ইঞ্জিনিয়ার এসে ইনস্টল করে হাসপাতালের টেকনিশিয়ানদের বুঝিয়ে দিলে আইসিইউ ও ন্যাজাল ক্যানোলা চালু করা যাবে।
এ ব্যাপারে আমরা ঢাকার সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছি। আইসিইউ চালু হলে ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা ইমার্জেন্সী রোগীদের তখন আর ঢাকা বরিশাল যেতে হবে না।
তবে, আইসিইউ বেড ও ন্যাজাল ক্যানোলা চালানোর জন্য একজন সার্বক্ষনিক টেকনিশিয়ান নিয়োগ দেওয়া প্রয়োজন বলেও মনে করেন সিভিল সার্জন। তিনি বলেন,
আমাদের ডাক্তার ও নার্সরা রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছেন। তবে, করোনা রোগীদের জন্য আরো ডাক্তার নার্স দরকার। বর্তমানে ২০ জন নার্স ও ৬ জন ডাক্তার করোনা রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছেন। বেড রয়েছে ১০০টি।
এদিকে, আইসিইউর অভাবে বহু গুরুতর অসুস্থ্য রোগীকে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি না করে নিয়ে যাচ্ছে বরিশাল কিংবা রাজধানী ঢাকায়। ২০ লক্ষাধিক মানুষের আবাসস্থল ভোলায় নূন্যতম চিকিৎসা সেবা না পেয়ে রোগীরা ছুটে চলছে বরিশাল ও ঢাকায়। কিন্তু, দেশের একমাত্র উপকূলীয় দ্বীপ জেলা হওয়ায় রাজধানী ঢাকায় যাতায়াতের একমাত্র পথ হচ্ছে নৌপথ। আবার সন্ধ্যার পর নৌপথেও যাতায়াত বন্ধ হয়ে যায়। তখন ভোলার সাথে দেশের অন্য জেলায় যোগাযোগ সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। অর্থাৎ
তাই, দীর্ঘদিন ধরে দেশের একমাত্র উপকূলীয় দ্বীপ জেলা ভোলায় একটি সরকারি মেডিকেল কলেজ নির্মানের দাবি জানিয়ে আসছিল ভোলাবাসী। সম্প্রতি তাদের এ দাবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও তুলে ধরা হয়।
ভোলা সদর হাসপাতালে আইসিইউর ব্যবস্থা না থাকায় গুরুতর অসুস্থ্য ভোলা সরকারি শেখ ফজিলাতুন্নেছা মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর মু রুহুল আমিন জাহাঙ্গীর এর সহধর্মিনী মিসেস ফরিদা বেগমকে ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে তিনি ২৪ এপ্রিল শনিবার মারা যান।
নিহত ফরিদা বেগমের দেবর ভোলার সিনিয়র সাংবাদিক মোকাম্মেল হক মিলন বলেন, আমার বড় ভাবী ও ভোলা শেখ ফজিলিতুননেছা মহিলা কলেজ এর সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন জাহাঙ্গীর এর সহর্ধমিনি মিসেস ফরিদা বেগম গুরুতর অসুস্থ্য হলে তাকে গত ২১ এপ্রিল সকালে ভোলা সদর হাসপাতাল নেয়া হয়। সদর হাসপাতালে আইসিইউ না থাকায় সেখান থেকে তাকে ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এবং আই সি ই ইউ তে রাখা হয়। সেখানে শনিবার ভোর রাতে তিনি মারা যান। মোকাম্মেল হক মিলন বলেন, ভোলা সদর হাসপাতালে আইসিইউ স্থাপিত হলে হয়তো আমার মায়ের মত বড় ভাবীকে ঢাকায় নিতে হতো না।
সম্প্রতি উপকূলীয় দ্বীপ জেলা ভোলায় করোনা রোগীর  পাশাপাশি বেড়েছে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা। জেলার প্রায় সব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। হাসপাতালে ঠাঁই পাচ্ছেনা ডায়রিয়া রোগীরা। বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যাও।
এ জেলায় পর্যাপ্ত চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারি এবং আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা না থাকায় চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এ দ্বীপ জেলার ২০ লক্ষাধীক মানুষ।
ফলে রোগীদের চিকিৎসা দিতে অনেকটা হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসক ও নার্সদের।
এদিকে করোনা রোগী ও ডায়রিয়া রোগীসহ গুরুতর অসুস্থ্য রোগীদের চিকিৎসাসেবার লক্ষ্যে ভোলার ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের জন্য ৩টি আইসিইউ বেড, ৫টি হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলাসহ ডায়রিয়ার ওষুধ ও করোনার চিকিৎসা সুরক্ষার সরঞ্জাম বরাদ্দ দেওয়া হয়। গত ১৯ এপ্রিল সোমবার ভোলায় বরাদ্দকৃত এসব সরঞ্জামাদি ভোলায় এসে পৌঁছে। জেলা প্রশাসনের একজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের উপস্থিতিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এসব সরঞ্জামাদি গ্রহন করেন।
কিন্তু, ভোলা ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে দক্ষ টেকনিশিয়ান না থাকায় আইসিইউ ও হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা স্থাপন করা সম্ভব হচ্ছে না।
উল্লেখ্য, ভোলায় করোনা সংক্রমণ বেড়ে গেছে। ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে।
এদিকে ২৪ ঘন্টায় ভোলায় নতুন করে আরো ২ নারী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। ৯১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে ভোলা সদর উপজেলায় ৩৪ জন এবং তজুমদ্দিন উপজেলায় ৫ জন। করোনা শনাক্ত হয়েছে।
এ নিয়ে জেলায় বর্তমানে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৬৭৩ জন।

আপনার মন্তব্য এই বক্সে লিখুন

উপদেষ্টা: মো.নকীব তালুকদার
উপদেষ্টা সম্পাদক: আবুল কালাম আজাদ,সাংগঠনিক সম্পাদক,বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম(বিএমএসএফ) ঢাকা।
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-মো.জাহিদুল ইসলাম দুলাল,সভাপতি লালমোহন জার্নালিষ্ট ফোরাম,ভোলা।
সম্পাদক: মো.শিমুল চৌধুরী
প্রকাশক:আরিফুর রহমান(রাহাত)
অফিস: ৭২৪,১ম তলা প্রেসক্লাব ভবন,ভোলা।
লালমোহন অফিস: ১২ নং ওয়ার্ড লালমোহন পৌরসভা,ভোলা।
বার্তা কক্ষ ই-মেইল: [email protected]
মোবাইল: ০১৭১৫-২৬১৬৪৫

প্রতিষ্ঠাতা: মোঃ মহির উদ্দিন (মাহিম)

কারিগরি সহায়তা: Next Tech

শিরোনাম :
★★ জননেত্রী শেখ হাসিনা অসহায় মানুষের কল্যানে নিবেদিত প্রাণ -এমপি শাওন ★★ ভোলায় জেলে পল্লীর শিশুদের মাঝে মানবিক সহায়তা প্রদান ★★ এমপি শাওনের হাতে শেখ হাসিনার মানবিক সহায়তা পেয়ে অসহায় পরিবারের মাঝে খুশির ঝড় বইছে ★★ বোরহানউদ্দিনের মির্জাকালুতে উপকূল ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ  ★★ ভোলার ৫ ইউনিয়নের ১০ গ্রামে কাল ঈদ ★★ লালমোহনে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা বিতরণ করলেন- এমপি শাওন ★★ সর্বজনের অকৃত্রিম ভালোবাসায় বিমোহিত এমপি শাওন ★★ লালমোহন প্রতিবন্ধী শিশু ও পথশিশু দের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেছেন ইউনুছ মিয়া ★★ লালমোহনে ঈদ উপলক্ষ্যে গরীব ও অসহায়দের মধ্যে নগদ অর্থ বিতরণ করলেন জসিম হাওলাদার ★★ ভোলার মেঘনায় কোস্টগার্ডের অভিযান, ১৫ ট্রলার জব্দ, আটক-১২