শনিবার, সন্ধ্যা ৭:৫৪, ২৭শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে শাবান, ১৪৪২ হিজরি
ভোলা ট্রিবিউনের পক্ষ হতে সকলকে জানাই প্রাণঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।
জাতীয় | আন্তর্জাতিক | ভোলা সদর | দৌলতখান | বোরহানউদ্দিন | লালমোহন | তজুমুদ্দিন | চরফ্যাশন | মনপুরা | ভোলার ইতিহাস ঐতিহ্য | বিশেষ সাক্ষাৎকার | প্রবাসীদের কথা | পাঠক কলাম |

ভোলা চরফ্যাসনে জোয়ারের পানিতে তরমুজঃ হাসি নেই চাষীর!

আপডেট : এপ্রিল, ৭, ২০২১, ১০:০১ অপরাহ্ণ

:

ভোলা সংবাদাতাঃ ভোলা চরফ্যাশনে  তরমুজ চাষির শেষ হাসি কেড়ে নিলো অতিরিক্ত জোয়ারের পানি! অতিরিক্ত জোয়ারের পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় কৃষকের মাথায় হাত।
 অনুসন্ধানে দেখা যায় চরফ্যাসন উপজেলা শশিভূষণ থানার চরকলমি ইউনিয়নের ৫ নংওয়ার্ডের কৃষক মো.খোকন মাঝি (৫০) এ বছর ১৬ একর জমিতে ১৮ লক্ষ টাকা ব্যায়ে করে তরমুজ চাষ করেছেন।
পূর্ণিমার অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে গত (১লা এপ্রিল) বুধবার প্লাবিত হয়ে লোনা পানিতে তলিয়ে গেছে তার ফসল। কৃষক মো.খোকন মাঝি জানান,যে সময় ফসল বিক্রি করার কথা ঠিক তার পূর্ব মুহূর্তে জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়ে সব তরমুজ গাছ মরে গেছে।
১৬ একর জমির মধ্যে সামান্য কিছু তরমুজ বিক্রি করতে পারলেও বাকি তরমুজ জমিতে রয়েগেছে।তিনি আরও জানান হটাৎ জোয়ারের পানিতে নষ্ট হয়ে গেছে ও লকডাউনের কারণে বিক্রি করা সম্ভব হয় নাই।
 জোয়ারের পানি আর না আসলেও লবণাক্ততা থাকায় পানি চলে যাওয়ার পরও তরমুজ গাছ মরে যাবে বলে তিনি জানান। গত
বুধবার (১লা এপ্রিল) থেকে পূর্ণিমার প্রভাবে জোয়ারে পানির উচ্চতা বাড়ছে।
প্রতিদিন ২৪ ঘণ্টায় দু’বার জোয়ার হচ্ছে। প্রতিবার জোয়ারে অন্তত ৮-১০ ঘণ্টা নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। ফলে শশিভূষণ থানার চর কলমি ইউনিয়নের কিছু জায়গায় বেড়িবাঁধ না থাকায় বিস্তীর্ণ এলাকা তিন-চার ফুট পানির নিচে তলিয়ে গেছে।
 কোথাও কোথাও পানির উচ্চতা আরও বাড়ছে। এতে তরমুজের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।জোয়ারের পানি লবণাক্ত হওয়ায় ক্ষতির পরিমাণ অনেক বেশি হয়েছে। চর কলমি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান কাওসার মাষ্টার এর মোবাইল বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য  নেওয়া সম্ভবপর হয়ে উঠেনি।
এদিকে চর কলমি ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের এক ব্যবসায়ী মো.তোফাজ্জল বলেন, জোয়ারে পানিতে প্লাবিত এসব এলাকার বহু কৃষক আদৌ কোনো ফসল ঘরে তুলতে পারবে কিনা, এ নিয়ে আশঙ্কা রয়েছে। এরমধ্যে তরমুজের ক্ষতি হয়েছে সবচেয়ে বেশি। অনেক জায়গায় তরমুজ চাষিদের ডুবে যাওয়া খেত থেকে ফসল বাঁচানোর ব্যর্থ চেষ্টা করতে দেখা গেছে। আবার অনেক কৃষকদের লোকসান গুণে হতাশা করতে দেখা গেছে।
এ বিষয়ে চরফ্যাসন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো.আবু হাচনাইন জানান,জোয়ারের পানিতে তরমুজের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের আর্থিকসহ অন্যান্য সহায়তা দেয়ার জন্য তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। যা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছানো হবে। এছাড়াও কয়েকদিনের মধ্যে জোয়ারে পানির চাপ কমে আসবে বলেও জানান তিনি।

আপনার মন্তব্য এই বক্সে লিখুন

উপদেষ্টা: মো.নকীব তালুকদার
উপদেষ্টা সম্পাদক: আবুল কালাম আজাদ,সাংগঠনিক সম্পাদক,বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম(বিএমএসএফ) ঢাকা।
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-মো.জাহিদুল ইসলাম দুলাল,সভাপতি লালমোহন জার্নালিষ্ট ফোরাম,ভোলা।
সম্পাদক: মো.শিমুল চৌধুরী
প্রকাশক:আরিফুর রহমান(রাহাত)
অফিস: ৭২৪,১ম তলা প্রেসক্লাব ভবন,ভোলা।
লালমোহন অফিস: ১২ নং ওয়ার্ড লালমোহন পৌরসভা,ভোলা।
বার্তা কক্ষ ই-মেইল: [email protected]
মোবাইল: ০১৭১৫-২৬১৬৪৫

প্রতিষ্ঠাতা: মোঃ মহির উদ্দিন (মাহিম)

কারিগরি সহায়তা: AMS IT BD

শিরোনাম :
★★ ভোলায় স্বেচ্ছাসেবক ফাউন্ডেশনের মাস্ক বিতরণ ★★ চরফ্যাসনে অজ্ঞাত দুই যুবকের গলা কাটা আগুনে ঝলসানো লাশ উদ্ধার ★★ ভোলায় ৬ কেজি গাঁজাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ★★ ভোলার মেঘনায় ফেরিতে আগুন,পুড়ে গেলো ৯টি যান ★★ ভোলা চরফ্যাসনে জোয়ারের পানিতে তরমুজঃ হাসি নেই চাষীর! ★★ ভোলায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে করোনা প্রতিরোধে লকডাউন ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম ★★ মনপুরায় মেঘনা থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার ★★ মাজেদ পাটওয়ারীর উদ্যোগে এমপি শাওনের সহধর্মিণীর সুস্থতার জন্য দোয়া মোনাজাত ★★ দ্বীপ জেলা ভোলায় করোনা রোগীর সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে ★★ বোরহানউদ্দিনের হাসান নগরে হঠাৎ বেড়েছে চোরের উৎপাত