সোমবার, সন্ধ্যা ৬:৪৯, ১৬ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ই রজব, ১৪৪২ হিজরি
ভোলা ট্রিবিউনের পক্ষ হতে সকলকে জানাই প্রাণঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।
জাতীয় | আন্তর্জাতিক | ভোলা সদর | দৌলতখান | বোরহানউদ্দিন | লালমোহন | তজুমুদ্দিন | চরফ্যাশন | মনপুরা | ভোলার ইতিহাস ঐতিহ্য | বিশেষ সাক্ষাৎকার | প্রবাসীদের কথা | পাঠক কলাম |

তোফায়েল আহমেদ নামেই পরিচিত ভোলা 

আপডেট : ফেব্রুয়ারি, ২০, ২০২০, ৬:৪৭ অপরাহ্ণ

:

আকতারুল ইসলাম আকাশ: আমার ছোটবেলা। যখন আমি প্রাথমিক ছেড়ে মাধ্যমিক স্তরে উঠেছিলাম। ধীরে ধীরে বড় হচ্ছি জ্ঞান হচ্ছে আর বুঝতেছি সবকিছু। স্কুল জীবনে যখন পড়াশোনা করছি। তখন প্রায়ই আড্ডা দিতাম বাজারে। কারণ আমাদের বাড়ি বাজারের খুবই নিকটে। তাছাড়া আমার বাবার ব্যবসা রয়েছে বাজারে। তাই ছোটবেলায় বাবা নামাজের সময় দোকানে আমাকে রেখে নামাজ পড়তে যেতেন। তাই বাজারে আমার আড্ডাটা ছিলো বেশি। আর আমার বাজে আরেকটা অভ্যাস ছিলো টিভি দেখা। তখন তো আর এতো টিভি চ্যানেল ছিলোনা। সাদাকালো টিভিতে বিটিভি দেখতাম। প্রতি বৃস্পতিবার আর শুক্রবারে বিটিভিতে ছায়াছবি চলত। ছবি আর খবরগুলো দেখা হতো বেশি। তখন সবাই খবর দেখত বেশ মনোযোগ দিয়ে। একটা বিষয় তখন খুব খেয়াল করতাম। খবরে কোনদিন যদি  ভোলা-১ আসনের এমপি জননেতা আলহাজ্জ্ব তোফায়েল আহমেদকে দেখাত। তখন টিভির সামনেই অনেকেই বলে উঠতো ‘এই যে তোফায়েল আহমেদ’। তখন ভাবতাম তোফায়েল আহমেদ কে। কি করে তিনি। টিভিতে তাকে দেখা যায় কেনো। আর তাকে দেখলেই বা সবাই কেনো হৈচৈ করে উঠে।
একদিন রাত ৮টার খবর চলছে। আমিসহ টিভির সামনে অনেকেই খবর দেখছি। আমি ছোট থাকায় মুরব্বিরা আমাকে মাটিতে বসতে বলত। তাই মাটিতে বসে বসে টিভি দেখতাম। সেইদিন সেই খবরে তোফায়েল আহমেদকে অনেক সময় ধরে দেখা গিয়েছিলো। দেখেছিলাম তিনি একটা বৈঠকে বক্তব্য দিচ্ছেন। সেইদিন টিভিতে একটু বেশি সময় ধরে তাকে দেখানোর কারনে ভালোভাবে তাকে দেখলাম। খবর শেষে এক চাচাকে বলেছিলাম চাচা তোফায়েল আহমেদ কে ও.! চাচা বলল তোফায়েল আহমেদ ভোলার রাজা। আমার ধারণা আমি তখন এমপি মন্ত্রী বুঝবোনা বিদায় তিনি রাজা হিসেবে আমাকে চিনিয়েছেন। তখন বুঝতাম ভোলার রাজা তোফায়েল আহমেদ।
একদিন আমাদের পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নে আমাদের স্কুল মাঠে তিনি আসবেন বলে শুনেছিলাম। দুপুরের দিকে দেখলাম কিছু  লোক স্কুল মাঠে লাল রঙের প্যান্ট ও লাল রঙের গেঞ্জি গায়ে দিয়ে ঢোল পিঠাচ্ছি ও অনেক বাদ্যযন্ত্র বাজাচ্ছে। আমি তা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখছি। হঠাৎ একটা সাদা রঙের গাড়ি আসল ( যাকে আমি জিপ গাড়ি বলতাম)। গাড়িটা আসার সাথে সাথে পুলিশ আমাদেরকে সরিয়ে দিলো। যুবকেরা মুরব্বিরা আমাদেরকে ঠিলে সরিয়ে দিলো। তখন স্কুলের পিছন হয়ে বাগানের মধ্য দিয়ে একটি সুপারি বাগানে গিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলাম। যেখান থেকে তোফায়েল আহমেদকে দেখা গিয়েছিলো।
উচ্চ ক্লাসে উঠে যখন উচ্চ বই পড়তে লাগলাম। তখন খোঁজে পেলাম বঙ্গবন্ধুর নামসহ অনেক নেতাকর্মীর নাম। বাংলাদেশের সাথে পাকিস্তানের যুদ্ধ বিষয়ে পড়তে গিয়ে আস্তে আস্তে জানতে পারলাম যতসব কাহিনী।
আর যতই বড় হচ্ছিলাম। ততই জানতে পারছিলাম তোফায়েল আহমেদের সম্পর্কে। ছোটবেলায় তাকে যেমন বীর মনে হতো মানুষের মুখ থেকে শুনে। এখন বড় হয়ে ঠিক তাকে তেমন বীরই দেখছি। এই ভোলাকে একমাত্র তোফায়েল আহমেদের ভোলা নামেই চেনে সবাই। ভোলার যত উন্নয়ন হয়েছে সব তার কল্যাণেই হয়েছে। এটা নিঃসন্দেহে বলা যায়। আর এখন পর্যন্তু এই দ্বীপ জেলা ভোলাকে সবাই তোফায়েল আহমেদের ভোলা নামেই চেনে। আর ছোটবেলায় আমিও চিনেছি তোফায়েল আহমেদ দ্বীপের রাজা।
লেখক: সাংবাদিক আকতারুল ইসলাম আকাশ

আপনার মন্তব্য এই বক্সে লিখুন

উপদেষ্টা: মো.নকীব তালুকদার
উপদেষ্টা সম্পাদক: আবুল কালাম আজাদ,সাংগঠনিক সম্পাদক,বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম(বিএমএসএফ) ঢাকা।
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-মো.জাহিদুল ইসলাম দুলাল,সভাপতি লালমোহন জার্নালিষ্ট ফোরাম,ভোলা।
সম্পাদক: মো.শিমুল চৌধুরী
প্রকাশক:আরিফুর রহমান(রাহাত)
অফিস: ৭২৪,১ম তলা প্রেসক্লাব ভবন,ভোলা।
লালমোহন অফিস: ১২ নং ওয়ার্ড লালমোহন পৌরসভা,ভোলা।
বার্তা কক্ষ ই-মেইল: [email protected]
মোবাইল: ০১৭১৫-২৬১৬৪৫

প্রতিষ্ঠাতা: মোঃ মহির উদ্দিন (মাহিম)

কারিগরি সহায়তা: AMS IT BD

শিরোনাম :
★★ লালমোহনে জাতীয় বীমা দিবস পালিত ★★ জাটকা রক্ষায় মেঘনা ও তেঁতুলিয়ায় আজ থেকে ২ মাস মাছ ধরা নিষিদ্ধ ★★ জাতীয় প্রেস ক্লাবে মোমিন মেহেদীকে লাঞ্ছিতর ঘটনায় উদ্বেগ ★★ সন্তানকে বাঁচাতে নিরবে অশ্রু ফেলছেন দিনমজুর ফারুক মিয়া ★★ বয়সের ভারে ন্যুজ, আমারে একটা কার্ড করে দেন-সমতা বিবি! ★★ ভোলায় দুই পৌরসভায় আ’লীগ প্রার্থীর বিজয় ★★ ভোলার চরফ্যাশন পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি’র প্রার্থীর ভোট বর্জন ★★ ভোলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দুই পৌরসভার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত ★★ লালমোহনে হাবিবুর রহমান তালুকদারের শেষ বিদায় ★★ বঙ্গবন্ধু ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টে ‘সাকিব’ নৈপুণ্য বেজায় খুশি ক্রীড়ামোদীরা